ইবন উমার রাদিয়াল্লাহু ‘আনহুমা থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, কোনো জিনিস যখন আল্লাহর কাছে গচ্ছিত রাখা হয়, তিনি নিশ্চয় সেটা হিফাযত করেন।[1]

আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে কেউ সফরে যাওয়ার ইচ্ছা করে, তার উচিৎ যাদেরকে রেখে যাচ্ছে, তাদের জন্য দো‘আ পড়া।[2]

أَسْتَوْدِعُكُمُ اللهَ الَّذِيْ لَا تُضِيْعُ وَدَائِعُهُ

দো‘আর অর্থ: আমি তোমাদেরকে ঐ আল্লাহর কাছে গচ্ছিত রাখছি, যিনি তাঁর নিকট গচ্ছিত জিনিস বিনষ্ট করেন না।

এ সংরক্ষণ শুধু সফরের ক্ষেত্রে নয়, সর্বক্ষেত্রেই ব্যাপক। এর ফলে পরিবার-পরিজন, ঘর-বাড়ি, ধন-সম্পদসহ সব কিছুই জিন্ন-ইনসানের অনিষ্ট থেকে হিফাযতে থাকবে। এর মাধ্যমে প্রকাশ পায় যে, বান্দা ছোট-বড় সকল কাজেই আল্লাহর মুখাপেক্ষী।

আর যদি বান্দা বলে,

«أستودع الله الذي لا تضيع ودائعه ديني ونفسي وأمانتي وخواتيم عملي، وبيتي وأهلي ومالي، وجميع ما أنعم الله به علي»

অর্থাৎ ‘আমি সে আল্লাহর কাছে আমানত রাখছি যার কাছে কোনো আমানত বিনষ্ট হয় না। আমার নিজের দীন, আত্মা, আমানত, শেষ আমল, আমার ঘর, আমার পরিবার, আমার সম্পদ, আর আল্লাহ আমার ওপর যে সব নে‘আমত দান করেছেন সে সব কিছুই’ তবে আল্লাহ সেগুলোও হেফাযত করবেন। সেগুলো খারাপ কিছু দেখবে না। মানুষ ও জীনের যাবতীয় খারাবী থেকে তা হিফাযত থাকবে।

 


[1] মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং ৫৬০৫

[2] মুসনাদে আহমাদ ২/৪০৩